Templates by BIGtheme NET
Home » প্রবাসী বাংলা » আমার স্ত্রীকে খুঁজে দিন প্লিজ

আমার স্ত্রীকে খুঁজে দিন প্লিজ

নিউজ ডেস্ক: এ যেন আরও এক রিজয়ানুর-প্রিয়ঙ্কার কাহিনি। শুধু পশ্চিমবঙ্গের বদলে পটভূমিটা হায়দরাবাদ। মাস দু’য়েক আগে বিয়ে হয়েছিল ওঁদের। ২৮ বছরের বি বিনয় বাবু আর ২৩ বছরের মমতার। কিন্তু বিয়ের এক মাস যেতে না যেতেই নিখোঁজ মমতা। গত এক মাস পাগলের মতো হন্যে হয়ে স্ত্রীকে খুঁজেছেন বিনয়। অভিযোগ জানিয়েছেন পুলিশের কাছেও। কোনও লাভ হয়নি। কোনও খোঁজই পাওয়া যায়নি মমতার। স্ত্রীকে ফিরে পেতে নিরুপায় হয়ে এবার রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রীর বসুন্ধরা রাজের শরণাপন্ন হলেন পেশায় ব্যাঙ্ক কর্মী বিনয়। খবর-আনন্দবাজার

২০১৩ সালে হায়দরাবাদে রাজস্থানের মমতার সঙ্গে আলাপ হয়ে তেলেঙ্গানার বি বিনয়ের। সেই আলাপ থেকে বন্ধুত্ব, বন্ধুত্ব থেকে প্রেম। বিনয়-মমতা ভিন্ন সম্প্রদায়ের। প্রথম থেকেই তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়ে এসেছেন মমতার বাড়ির লোকজন। বাড়ির আপত্তি কানে তোলেননি মমতা। বাড়ির অমতেই বিয়ে করে ছিলেন বিনয়কে।

একটি নিউজ চ্যানেলকে বিনয় জানিয়েছেন, তাঁদের বিয়ের পর থেকেই লাগাতার হুমকি আসছিল মমতার পরিবারের কাছ থেকে। তাঁরা বলেছিলেন, যে কোন ভাবেই মমতাকে জোধপুরে তাঁরা ফিরিয়ে নিয়ে যাবেনই। বিয়ের পরে নতুন বাড়িতে যাওয়ার পর থেকেই কয়েক জন লাগাতার পিছু ধাওয়া করছিল এই দম্পতিকে। সে সময় স্থানীয় পুলিশের কাছে অভিযোগও দায়ের করেন তাঁরা। মমতা নিজে জানান বাড়ির লোক-জনের শাসানিতে তিনি ভীত। পুলিশের কাছ থেকে নিরাপত্তার আবেদন জানান তিনি। কিন্তু লাভ হয়নি। স্থানীয় পুলিশ জানায় মমতাকে তারা কোনও নিরাপত্তাই দিতে পারবে না।

গত মাসে একদিন অফিস থেকে বাড়ি ফিরে বিনয় দেখেন বাড়ি ফাঁকা। মমতা সেখানে নেই। আতঙ্কিত বিনয় বারবার ফোনে মমতার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালান। কোন উত্তর পান না। বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে খোঁজ শুরু করেন স্ত্রীর। সেই সময়, প্রতিবেশীরা জানান কয়েকজন জোর করে মমতাকে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে যেতে দেখেছেন তাঁরা। তার পর থেকে আজও কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি মমতার।

‘‘আমি মমতার নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত। ও ঠিক থাকলে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করতই। আমি নিশ্চিত ওর বাড়ির লোকেরাই ওকে জোর করে তুলে নিয়ে গেছে।’’ জানিয়েছেন উদ্বিগ্ন বিনয়।

হায়দরাবাদে মমতার অপহরণের মামলা দায়ের করেছেন বিনয়। সেখানকার পুলিশ জোধপুরেও মমতাকে খুঁজতে দল পাঠিয়ে ছিল। কিন্তু এখনও পর্যন্ত মমতার কোনও চিহ্নই পাওয়া যায়নি।
অসহায় বিনয় শেষ পর্যন্ত তাই রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রীর সাহায্য চেয়েছেন। ‘‘দয়া করে আমার স্ত্রীকে খুঁজে দিন।’’বসুন্ধরা রাজের কাছে কাতর অনুনয় করেছেন তিনি।

অন্য দিকে, জোধপুরে পুলিশের কাছে পাল্টা অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে মমতার পরিবারের তরফে। তাঁদের অভিযোগ, বিয়ের পর পাঁচ কিলো সোনা নিয়ে বাড়ি থেকে পালান মমতা।

Facebook Comments