Templates by BIGtheme NET
Home » খেলাধুলা » শেষ ম্যাচে নামার আগে জোড়া ধাক্কা খেল ইংল্যান্ড

শেষ ম্যাচে নামার আগে জোড়া ধাক্কা খেল ইংল্যান্ড

ক্রাইমভিশনবিডি ডেস্ক:

 

করোনা ধরা পড়ল ইংল্যান্ড দলে, আর সেটার ধাক্কা যেন স্কটল্যান্ডের চেয়েও বেশি করে খাচ্ছে ইংল্যান্ড দল!

গতকাল খবর আসে, স্কটল্যান্ডের মিডফিল্ডার বিলি গিলমোর করোনা পজিটিভ হয়েছেন। কিন্তু গত শুক্রবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে দারুণ আলো ছড়ানো গিলমোরকে ম্যাচ শেষে জড়িয়ে ধরেন ইংলিশ ক্লাব চেলসিতে গিলমোরের দুই ইংলিশ সতীর্থ মেসন মাউন্ট ও বেন চিলওয়েল।

 

সে কারণে সতর্কতাসূচক পদক্ষেপ হিসেবে গতকালই তাঁদের দুজনকে আইসোলেশনে যেতে বলে দিয়েছিল ইংল্যান্ড দল। করণীয় ঠিক করতে ইংল্যান্ডের স্বাস্থ্যসেবা কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও এ নিয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছিল ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

 

তখনই গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল, চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে ইউরোর গ্রুপ পর্বে আজ ইংল্যান্ডের শেষ ম্যাচে মাউন্ট ও চিলওয়েলের খেলা না-ও হতে পারে। ম্যাচের কয়েক ঘণ্টা আগে দুঃসংবাদ পেল ইংল্যান্ড দল। মাউন্ট ও চিলওয়েলকে আজ তো পাচ্ছেই না, ইংল্যান্ড শেষ ষোলোতে উঠলে সেখানেও দুজনকে না পাওয়ার সম্ভাবনা ইংল্যান্ডের।

তবে স্কটল্যান্ডের কোনো খেলোয়াড়ের সঙ্গে গিলমোর ‘কাছাকাছি ছিলেন না’ বলে জানিয়েছে স্কটিশ ফুটবল ফেডারেশন। সে কারণে আজ রাতে গ্রুপের অন্য ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের বাকি ২৫ খেলোয়াড়ের কারওই খেলতে বাধা নেই।

 

গিলমোরের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর আসার পর অবশ্য ইংল্যান্ড দলের সবারই করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। সেখানে মাউন্ট ও চিলওয়েলসহ সবারই নেগেটিভ এসেছে। তবু ঝুঁকি নিতে চায়নি ইংল্যান্ড দল। ২৮ জুন পর্যন্ত আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে চেলসিতে খেলা মিডফিল্ডার মাউন্ট ও লেফটব্যাক চিলওয়েলকে।

 

শেষ ষোলোতে উঠতে আজ চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে ড্র হলেই চলবে ইংল্যান্ডের। জিতলে গ্রুপসেরা হয়ে শেষ ষোলোতে যাবে গ্যারেথ সাউথগেটের দল, ড্র করলে যাবে দ্বিতীয় হয়ে। হারলেও গ্রুপে দ্বিতীয় হয়ে শেষ ষোলোতে যাওয়ার সুযোগ থাকবে, থাকবে ছয় গ্রুপে তৃতীয় হওয়া ছয় দলের মধ্যে সেরা চারটির একটি হয়ে শেষ ষোলোতে যাওয়ার সুযোগও।

তবে ইংল্যান্ড শেষ ষোলোতে উঠলে সে ক্ষেত্রে এই দুজনকে না পাওয়া ইংল্যান্ডের প্রস্তুতিতে বড় বাধা হয়েই আসবে। বিশেষ করে মাউন্টকে না পাওয়া। এখন পর্যন্ত মাউন্ট গ্রুপে ইংল্যান্ডের দুটি ম্যাচেই খেলেছেন। চিলওয়েল এখনো অবশ্য কোনো ম্যাচে খেলেননি।

 

শেষ ষোলোতে দুজনকে ইংল্যান্ড পাবে কি না, সেটা নির্ভর করছে ইংল্যান্ডের ম্যাচ কবে পড়ে, সেটার ওপরও। ইংল্যান্ড গ্রুপে দ্বিতীয় হলে সে ক্ষেত্রে শেষ ষোলোতে তাদের ম্যাচ পড়বে ২৮ জুন।

 

কিন্তু যদি গ্রুপসেরা হয়ে পরের পর্বে যায় ইংল্যান্ড, সে ক্ষেত্রে শেষ ষোলোতে ইংল্যান্ডের ম্যাচ হবে ২৯ জুন। আর তৃতীয় হওয়া সেরা চার দলের একটি হয়ে শেষ ষোলোতে গেলে ইংল্যান্ডের ম্যাচ পড়তে পারে ২৭ অথবা ২৯ জুন—তারিখ নির্ভর করবে অন্য গ্রুপের ম্যাচের ওপর।

মাউন্ট ও চিলওয়েলকে নিয়ে ঝামেলাটা বেধেছে, কারণ গত শুক্রবার স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র ম্যাচের পর দুজন স্কটল্যান্ডের গিলমোরের সঙ্গে কিছু সময় কাটিয়েছেন। কথা বলেছেন, আলিঙ্গনে জড়িয়েছেন। এরপর গতকাল আসে বিলমোরের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর। ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, আইসোলেশনে থাকার দিনগুলোতে মাউন্ট ও চিলওয়েল ইংল্যান্ডের বেস ক্যাম্পে ‘আলাদা জায়গায় ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন করবেন।’

 

ইংল্যান্ডের গণস্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ (পিএইচই) এ ঘটনায় ইংল্যান্ডের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে কাজ করছে। পিএইচই-ই নিশ্চিত করেছে, গিলমোরের সঙ্গে ‘ক্লোজ কন্ট্যাক্টে’ ছিলেন চিলওয়েল ও মাউন্ট। সে কারণেই তাঁদের নিয়ে এই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা।

 

পিএইচইর সংজ্ঞা অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি একজন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির ‘ক্লোজ কন্ট্যাক্টে’ এসেছেন বলে তখনই ধরা হবে, যখন তিনি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির এক মিটারের মধ্যে থেকে মুখোমুখি আলাপ করবেন, অথবা দুই মিটারের মধ্যে ১৫ মিনিটের বেশি সময় থাকবেন।

Facebook Comments