Templates by BIGtheme NET
Home » খেলাধুলা » মেসির জাদুতে বলিভিয়াকে উড়িয়ে দিল আর্জেন্টিনা

মেসির জাদুতে বলিভিয়াকে উড়িয়ে দিল আর্জেন্টিনা

“””\মেসির জাদুতে বলিভিয়াকে উড়িয়ে দিল আর্জেন্টিনা। ৪–১ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা। আগামী ৩ জুলাই গোইয়ানিয়ায় ‘বি’ গ্রুপের চতুর্থ দল ইকুয়েডরের বিপক্ষে শেষ আটের লড়াইয়ে নামবে মেসির আর্জেন্টিনা।

 

এদিকে মাঠে নামলেই রেকর্ডটা নিজের করে নেবেন লিওনেল মেসি, এমনটি জানাই ছিল। আর্জেন্টিনার হয়ে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড আজ তার হাতে। বরাবরের মতো কুইয়াবায় বলিভিয়ার বিপক্ষে রেকর্ডের ওই ম্যাচে খেলার নৈপুণ্যও কম দেখাননি এ মহাতারকা।

 

কুইয়াবার অ্যারেনা পানতানালে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোরে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন মেসি, একটি করে আলেহান্দ্রো গোমেস ও লাউতারো মার্তিনেস। অবশ্য মেসি একটি করিয়েছেন।

 

শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অনেকগুলো চমৎকার সেভে ব্যবধান আরও বড় হতে দেননি বলিভিয়া গোলরক্ষক কার্লোস লাম্পে।

 

বলিভিয়াকে শুরুতেই চেপে ধরা আর্জেন্টিনা এগিয়ে যেতে পারত চতুর্থ মিনিটে। গনসালো মনতিয়েলের ক্রসে সের্হিও আগুয়েরোর শট ঠেকান লাম্পে। তবে পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে না পারলেও ফিরতি বলে আনহেল কোররেয়ার শট আটকে দেন এই গোলরক্ষক।

 

ষষ্ঠ মিনিটে আর পারেননি লাম্পে। কোররেয়ার কাছ থেকে ডি বক্সের ঠিক বাইরে বল পেয়ে দারুণ দক্ষতায় ডিফেন্ডারদের মাথার ওপর দিয়ে বল বাড়ান মেসি। ছুটে গিয়ে চমৎকার ভলিতে বাকিটা সারেন গোমেস।

 

৩৩তম মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্যবধান বাড়ান মেসি। ডি বক্সে গোমেসকে ফাউল করায় পেনাল্টি পেয়েছিল আর্জেন্টিনা।

 

 

৩৬তম মিনিটে ডি বক্সের মাথা থেকে কোররেয়ার জোরালো শট ঠেকান বলিভিয়ার গোলরক্ষক। তিন মিনিট পর জেয়সন চুরার দূরপাল্লার শট ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানি।

 

৪২তম মিনিটে স্কোর লাইন ৩-০ করে ফেলেন মেসি। মাঝ মাঠ থেকে বল বাড়ান আগুয়েরো। বিপদ দেখে এগিয়ে আসেন বলিভিয়া গোলরক্ষক। তবে কিছুই করতে পারেননি তিনি। তার মাথার ওপর দিয়ে জালে বল পাঠান আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। দেশের হয়ে এটি তার ৭৫তম গোল, কোপা আমেরিকায় ১২তম।

 

নিজের শততম ম্যাচে অ্যাসিস্টের পর জালের দেখাও পেয়ে যাচ্ছিলেন আগুয়েরো। ৪৪তম মিনিটে দুরূহ কোণ থেকে তার শট একটুর জন্য থাকেনি লক্ষ্যে।

 

দ্বিতীয়ার্ধেও একইরকম আক্রমণাত্মক শুরু করে আর্জেন্টিনা। তবে ৬০তম মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে ব্যবধান কমায় বলিভিয়া। লিওনেল জুস্তিনিয়ানোর ক্রসে বুলেট গতির শটে জাল খুঁজে নেন এরউইন সাভেদ্রা।

 

তবে ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে সময় নেয়নি আর্জেন্টিনা। ৬৩তম মিনিটে বদলি নেমে দুই মিনিটের মধ্যে জালের দেখা পেয়ে যান লাউতারো মার্তিনেস।

 

মার্কুস আকুনার ক্রস ঝাঁপিয়ে কোনোমতে হাত ছোঁয়ান গোলরক্ষক। ফিরতি বলে আর্জেন্টিনার এক খেলোয়াড়ের শট বলিভিয়ার ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে দিক পাল্টালে পেয়ে যান অরক্ষিত মার্তিনেস। খুব কাছ থেকে ফাঁকা জালে বল পাঠান ইন্টার মিলানের এই স্ট্রাইকার।

 

৭০তম মিনিটে মার্তিনেসের দুটি চেষ্টা ঠেকিয়ে ব্যবধান আরও বড় হতে দেননি বলিভিয়ার গোলরক্ষক। সাত মিনিট পর মেসির নিচু ফ্রি কিক ঝাঁপিয়ে ঠেকান তিনি। ফিরতি বলে লিসান্দ্রো মার্তিনেসের শট কর্নারের বিনিময়ে বাঁচান তিনি।

 

রেকর্ড ম্যাচে হ্যাটট্রিক পেয়েই যাচ্ছিলেন মেসি। যোগ করা সময়ে কাছের পোস্টে তার শট ঠেকিয়ে দেন লাম্পে।

 

৪ ম্যাচে ৩ জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ সেরা আর্জেন্টিনাই। গ্রুপ পর্বের শেষ দিনের আরেক ম্যাচে প্যরাগুয়েকে ১-০ গোলে হারিয়েছে উরুগুয়ে। ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে এসেছে কোপা আমেরিকার সফলতম দলটি।

 

৬ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই রয়েছে প্যারাগুয়ে। ৫ পয়েন্ট নিয়ে চারে থাকা চিলি কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হবে ব্রাজিলের। বলিভিয়া ফিরছে শূন্য হাতে।””””

Facebook Comments