Templates by BIGtheme NET
Home » প্রবাসী বাংলা » যুক্তরাষ্ট্রে ২৯ বছরেও কেউ দেখেনি এমন বাজে ‘ফোবানা’!

যুক্তরাষ্ট্রে ২৯ বছরেও কেউ দেখেনি এমন বাজে ‘ফোবানা’!

গত ২৯ বছরে যা ঘটেনি এবারে তাই ঘটল যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত তিন দিনের ফোবানা সম্মেলনে। চরম অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম আর দফায় দফায় হট্টগোল আর দর্শকশ্রোতাদের জিম্মি করার ঘটনা দিয়ে গত রবিবার শেষ হয়েছে প্রবাসে বাংলাদেশিদের মিলনমেলা নামে পরিচিত এ ফোবানা সম্মেলন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওয়াশিংটনের পার্শ্ববর্তী ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের আর্লিংটন শেরাটন পেন্টাগন সিটি হোটেলে ফোবানা সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। গত ২৯ বছরে যা ঘটেনি এবারে তাই ঘটল যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত তিন দিনের ফোবানা সম্মেলনে। চরম অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম আর দফায় দফায় হট্টগোল আর দর্শকশ্রোতাদের জিম্মি করার ঘটনা দিয়ে গত রবিবার শেষ হয়েছে প্রবাসে বাংলাদেশিদের মিলনমেলা নামে পরিচিত এ ফোবানা সম্মেলন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওয়াশিংটনের পার্শ্ববর্তী ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের আর্লিংটন শেরাটন পেন্টাগন সিটি হোটেলে ফোবানাগত ২৯ বছর আগে ১৯৮৭ সালে ওয়াশিংটন ডিসি থেকেই যাত্রা শুরু হয়েছিল এই ফোবানা সম্মেলনের। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব গ্রেটার ওয়াশিংটন (বাগডিসি)-এর আয়োজনে এবারে ৩০ তম ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোসিয়েশনস ইন নর্থ আমেরিকার (ফোবানা) সম্মেলনের শেষ ২ দিনে নিরাপত্তাকর্মিদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছিল ২ শতাধিক শিশু-কিশোরসহ সহস্রাধিক দর্শকশ্রোতা। মিলনায়তনের ধারন ক্ষমতার চেয়ে অতিরিক্ত দর্শক সমাগম হওয়ায় শনি ও রবিবার মিলনায়তনের ভেতরের দর্শকদের জন্য শৌচাগারে যাওয়া আসা বন্ধ করে দেওয়া হয়। যা গত ২৯ বছরে অন্য কোন ফোবানা সম্মেলনে ঘটেনি। যারা কোমলমতি শিশু-কিশোরদের জন্য প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে গেছেন তাদেরকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি নিরাপত্তাকর্মিরা। তাঁরা ২/৩ ঘন্টা যাবত আটকা পড়েছিলেন বাইরে। শেষ দুইদিনে প্রায় ৫ ঘন্টা করে সহস্রাধিক দর্শকশ্রোতাদের জিম্মি করে রেখেছিলেন নিরাপত্তা কর্মিরা। ফোবানা কর্তৃপক্ষের এ ধরনের কর্মকান্ডে ক্ষুব্ধ হয়েছেন শতশত দর্শক।

 

শুধু তাই নয় গত শনি ও রবিবার দুই দিনে অনলাইনে টিকেট কেটে তিন শতাধিক দর্শক গেটের বাইরে অপেক্ষা করলেও তাঁরা কেউই ভেতরে প্রবেশ করতে পারেনি। রবিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে দুই বাংলার জনপ্রিয় শিল্পী নচিকেতার গান শুনতে আসা দর্শকরা ভেতরে ঢুকতে না পেরে হল রুমের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। তাঁরা নিরাপত্তাকর্মীসহ ফোবানা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে ক্ষুব্ধ দর্শকশ্রোতারা ফোবানার লোকজনদের ওপর মারমুখী হয়ে উঠেন। পরে নিরাপত্তাকর্মীরা অগ্রিম ও অনলাইনে কেনা টিকেটের মূল্য ফেরতের প্রতিশ্রুতি দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এ সময় ফোবানা আয়োজক ও স্বাগতিক কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর অব্যবস্থাপনার দায় স্বীকার করে দর্শক-শ্রোতাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। একই সঙ্গে তিনি পূর্বে কেনা টিকিটের মূল্য ফেরত দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে কাউকেই টিকেটের অর্থ ফেরত দেওয়া হয়নি। এটা একটি বড় ধরনের প্রতারনা বলে দর্শকরা অভিযোগ করেন। মিলনায়তনের ধারন ক্ষমতার চেয়ে অনলাইনে কেন অতিরিক্ত টিকেট বিক্রি করা হয়েছে দর্শকদের এমন প্রশ্নের কোন সদুত্তর দিতে পারেনি ফোবানা কর্তৃপক্ষ। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে আসা প্রবাসী বাংলাদেশিরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত ২৯ বছরের মধ্যে সবচেয়ে নিম্নমানের ফোবানা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল ওয়াশিংটনে। স্বয়ং ফোবানা ষ্টিয়ারিং কমিটির অনেক সদস্যও এমন মন্তব্য করেছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ফোবানা কমিটির অনেকেই বলেছেন অনেকদিন ধরে আমরা ফোবানাকে নানাভাবেই সহযোগিতা করে আসছি, কিন্তু এত নিম্নমানের ব্যবস্থাপনা এর আগে কখনো দেখিনি।

 

গত শনিবার রাত দেড়টার দিকে মঞ্চে উঠানো হয় দেশের জনপ্রিয় শিল্পী বেবী নাজনীনকে। তিনি মাত্র ২/৩টি গান পরিবেশনের পরই হঠাৎ করেই হোটেল কর্তৃপক্ষ তাঁর মাইক বন্ধ করে দেয়। ফলে বেবী অপমানিত বোধ করেন। তিনি ফোবানার স্বাগতিক কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীরকে বলেন, এমন ঘটনা একজন শিল্পীর জন্য চরম অপমানজনক। এ ঘটনার জন্য বেবী তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন। প্রসঙ্গত বেবী নাজনীন মঞ্চে উঠেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার পক্ষে দর্শকদের শুভেচ্ছা জানান।

 

ঘন্টার পর ঘন্টা ফ্যাশন শো আর বাচ্চাদের নাচ দেখিয়ে কেন ১০ মিনিট আগে একজন বড়মাপের শিল্পীকে মঞ্চে উঠানো হল দর্শকরা এমন প্রশ্নে জর্জরিত করে তোলেন ফোবানা কর্তৃপক্ষকে। এ প্রসঙ্গে ফ্লোরিডার অরলান্ডো থেকে আসা দর্শক নুরুল ইসলাম নুরু বাংলা প্রেস’কে বলেন, আমি চৌদ্দশত মাইল গাড়ি চালিয়ে এ অনুষ্ঠান দেখতে এখানে এসেছি। এরা যা দেখাচ্ছে, তার চেয়ে আমাদের ছেলেমেয়েরা ভাল দেখাতে পারে। আমরা এসেসি মাত্র দেশের নামিদামি শিল্পীদের গান শুনতে। এদের কোন কান্ডজ্ঞান নেই কখন কোন শিল্পীকে মঞ্চে উঠাতে হবে।

 

ম্যারিল্যান্ড থেকে আসা শারমিনা রহমান বাংলা প্রেস’কে বলেন, আমি খুবই বিরক্ত। আমরা অর্থ ব্যয় করে কোন ফ্যাশন শো দেখতে আসিনি। আমারা গান শুনতে এসেছি।

 

কানেকটিকাট থেকে সপরিবারে ফোবানা সম্মেলনে এসেছিলেন মোহাম্মদ শাহীন। তাঁদের সঙ্গে আরো একটি পরিবার এসেছিলে। তাঁরা শুক্রবার তিনদিনের জন্য অগ্রিম টিকেট কিনে নেন, কিন্তু শনিবার ও রবিবার রাত নয়টার পর তাঁরা আর মিলনায়তনে প্রবেশ করতে পারেনি। তাঁরা অভিযোগ করে বলেন, ধারন ক্ষমতার চেয়ে অতিরিক্ত দর্শক হওয়ায় মুল দরজা বন্ধ করা হয়েছে কিন্তু পেছনের দরজা দিয়ে স্থানীয় মুখ চেনা লোকদের ভেতরে প্রবেশ করে দেখা গেছে। এ নিয়ে নিরাপত্তা কর্মিদের সঙ্গে তাঁদের বাক-বিতন্ডাও হয়েছে। তাঁরা আইফোনে এ দৃশ্যের ছবি ও ভিডিও করে রেখেছন বলে বাংলা প্রেস’কে জানান।

 

গত শুক্রবার রাত ৯টায় গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন উদ্বোধন করেন এ সম্মেলনের। যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় অর্ধশত সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন অংশ নেয় এবারের সম্মেলনে। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সেমিন সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

Facebook Comments