Templates by BIGtheme NET
Home » রাজনীতি » বিএনপির ২০০ নেতাকর্মীর নামে মামলা

বিএনপির ২০০ নেতাকর্মীর নামে মামলা

ক্রাইমভিশনবিডি ডেস্ক:

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকনের নামে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলা করেছে পুলিশ।

 

মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) বিকেলে নরসিংদী মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আবদুল আলীম বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

 

 

মামলায় খায়রুল কবির খোকনসহ ৭২ জন বিএনপি নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ১৫০-২০০ জনকে আসামি করা হয়। এসময় ৬ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

 

 

মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সওগাতুল আলম।

 

মামলায় সোমবার বিকেলে জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশী কাজে বাধা সৃষ্টি, ইটপাটকেল ছুড়ে পুলিশকে আক্রমণ এবং অটোরিকশা ভাঙচুরের অভিযোগ করা হয় আসামিদের বিরুদ্ধে।

 

গ্রেফতাররা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), হারুন অর রশিদ প্রধান (৫২), মানিক মিয়া (৫৪), আজহারুল ইসলাম (৪৭), মো. রাজিব (২০) ও শরীফ মিয়া (২৩)।

 

মামলার এজহারে জানা যায়, সোমবার বিকেলে বিএনপির নেতাকর্মীরা নরসিংদী সদরের চিনিশপুর এলাকায় রাস্তা বন্ধ করে দলীয় অনুষ্ঠান করছিলো।

 

পুলিশ তাদের রাস্তা থেকে সরে যেতে বললে তারা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছোড়ে এবং ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় ইটের আঘাতে আবু সাইদ ও সবুজ মিয়া নামে দুজন পুলিশ সদস্য আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে পলানোর সময় মোট ছয়জনকে আটক করে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে ২০টি ইটের টুকরো, পাঁচটি লাঠি ও বিস্ফোরিত তিন থেকে চারটি ককটেলের অংশবিশেষ উদ্ধার করা হয়।

বিএনপি নেতাকর্মীরা জানায়, সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে নরসিংদী জেলা বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির চিনিশপুর কার্যালয়ে সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

 

সমাবেশের শেষ মুহূর্তে সন্ধ্যা ৬টার দিকে নেতাকর্মীরা বের হতে গেলেই গণ-গ্রেফতারের চেষ্টা চালায় পুলিশ। পরে বিএনপির মূল ফটকের সামনে পুলিশ অবস্থান নেয়। পরে চারপাশ ঘেরাও করে রাখে। দীর্ঘ প্রায় চার ঘণ্টা কার্যালয়ের বিরুদ্ধে অবরুদ্ধ হয়ে থাকে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনসহ দলীয় নেতাকর্মীরা। পরে রাত পৌনে ১০টায় খায়রুল কবির খোকন কার্যালয় থেকে বের হয়ে যায়। পরে নেতাকর্মীরা যার যার মতো বের হয়ে যায়।

 

তবে পুলিশ শুরু থেকেই অবরোধের বিষয়টি অস্বীকার করে জানায়, বিএনপির নেতাকর্মীরা নিজেরাই অবরুদ্ধ হয়ে ছিলেন। পুলিশ তাদের কিছুই করেনি। এখন তারা অবরুদ্ধ হয়ে থাকলে পুলিশ কি করবে?  মূলত অনেক লোকজন জড়ো হওয়ার কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বিএনপি কার্যালয় এলাকায় অবস্থান করছিলো। যেন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।

 

নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সওগাতুল আলম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলায় খায়রুল কবির খোকনসহ ৭২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

Facebook Comments Box