Templates by BIGtheme NET
Home » অন্যান্য » প্রেমের টানে পড়ে বাংলাদেশি তরুণী যখন ভারতে!

প্রেমের টানে পড়ে বাংলাদেশি তরুণী যখন ভারতে!

ক্রাইমভিশনবিডি ডেস্ক:

বাংলাদেশি এক তরুণীর সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভারতের এক যুবকের বন্ধুত্ব হয়। পরে সেটি গড়ায় প্রেমে। প্রেমের একপর্যায়ে বাংলাদেশি তরুণী অবৈধভাবে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মৌ অঞ্চলে চলে যান। এরপর সেই যুবক ও তরুণী বিয়ে করেন।

 

থাকতে শুরু করেন একসঙ্গে।

ভারতে থাকার জন্য তরুণীকে জাল পরিচয় পত্রও তৈরি করে দেন ওই যুবক। দু’জন ঠিকমতো বসবাস করতে থাকলেও বিষয়টি পুলিশের কানে পৌঁছে যায়। আর এতেই বাধে বিপত্তি।

 

পুলিশ গত রবিবার সন্ধ্যায় ওই তরুণীর সঙ্গে তার প্রেমিককেও গ্রেফতার করে।

জানা যায়, বাংলাদেশের টাঙ্গাইলের বাসিন্দা ফারজানা খাতুন (২৬) জর্ডানে কাজ করতেন। ফেসবুকের মাধ্যমে উত্তরপ্রদেশের মৌ কোপাগঞ্জের বাসিন্দা গুলশান রাজভারের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব হয়। দু’জনের বন্ধুত্ব প্রেমে রূপান্তরিত হয় এবং তারা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন।

 

গত বছরের অক্টোবরে মেয়েটি বাংলাদেশ থেকে নৌকায় করে পশ্চিমবঙ্গে যান। সেখান থেকে বাসে কলকাতায় যান তিনি। প্রেমিক গুলশান আগে থেকেই তার জন্য কলকাতায় অপেক্ষা করছিলেন।

 

ফারজানাকে সঙ্গে নিয়ে মৌয়ে নিজের বাড়িতে আসেন ওই যুবক। তরুণীকে স্ত্রী বলে পরিচয় করিয়ে সোনা রাজভারের নামে একটি জাল আধার কার্ড তৈরি করেন।

 

এরপর জাল পদ্ধতিতে বিয়ের হলফনামাও পেয়ে যান তারা। ভারতের স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ায় (এসবিআই) অ্যাকাউন্ট খোলেন তারা। বিদেশে কোথাও চাকরির জন্য বাংলাদেশি ওই তরুণীর ভুয়া পাসপোর্টও তৈরি করা হয়।

প্রায় এক বছর পর উভয়ের বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশের পুলিশের কাছে অভিযোগ পৌঁছায়। বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। বিষয়টি সামনে এলে পুলিশও হতবাক হয়ে যায়। এরপর রোববার সন্ধ্যায় দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

Facebook Comments Box